Life science

© ভিটামিন ও রোগসমুহঃ
-----------------------------------------------
★ রাতকানা রোগ হয় -- ভিটামিন এ এর অভাবে।
★ অামলকী, লেবু, পেয়ারা ভিটামিনের উৎস -- ভিটামিন সি।
★ সর্বাধিক স্নেহ জাতীয় পদার্থ বিদ্যমান -- দুধে।
★ রক্তশূন্যতা দেখা দেয় -- অায়রনের অভাবে।
★ দুধের রং সাদা হয় -- প্রোটিনের জন্য।
★ ভিটামিন সি এর রাসায়নিক নাম -- অ্যাসকরবিক এসিড।
★ প্রোটিন তৈরিতে ব্যবহৃত হয় -- অ্যামাইনো এসিড।
★ কচুশাকে বেশি থাকে -- লৌহ।
★ সুষমখাদ্যে শর্করা, অামিষ ও চর্বি জাতীয় খাদ্যের অনুপাত -- ৪:১:১।
★ সবুজ তরিতরকারিতে সবচেয়ে বেশি থাকে -- খনিজ পদার্থ ও ভিটামিন।
★ সবচেয়ে বেশি পাটাশিয়াম পাওয়া যায় -- ডাবে।
★ মাড়ি দিয়ে পুজি ও রক্ত পড়ে -- ভিটামিন সি এর অভাবে।
★ মানবদেহের বৃদ্ধির জন্য প্রয়োজন -- অামিষ জাতীয় খাদ্যে।
★ সূর্য কিরণ হতে পাওয়া যায় -- ভিটামিন ডি।
★ ডিমের সাদা অংশে যে প্রোটিন থাকে --
অ্যালবুমিন।
★ অামিষের কাজ -- দেহ কোষ গঠনে সহয়তা করা।
★ মোটামুটি সম্পূর্ণ বা অাদর্শ খাদ্য বলা হয় -- দুধকে।
★ কোলেস্টরল -- এক ধরণের অসম্পৃক্ত
অ্যালকোহল।
★ কোলাজেন -- একটি প্রোটিন।
★ হাড় ও দাত তৈরির জন্য প্রয়োজন -- ডি ভিটামিন।
★ ভিটামিন ডি এর অভাবে -- রিকেটস রোগ।
★ অস্থির বৃদ্ধির জন্য পোয়োজন -- ক্যালসিয়াম।
★ মলা মাছে থাকে -- ভিটামিন ডি।
★ সহজে সর্দি কাশি হয় -- ভিটামিন সি এর অভাবে।
★ বিষাক্ত নিকোটিন থাকা -- তামাকে।
★ ত্বকে ভিটামিন ডি তৈরিতে সাহায্য করে -- অাল্ট্রাভায়োলেট রশ্মি।
★ শরীরে শক্তি যোগাতে দরকার -- খাদ্য
★ সামুদ্রিক মাছে পাওয়া যায় -- অায়োডিন।
★ সবচেয়ে বেশি ভিটামিন সি সমৃদ্ধ ফল -- পেয়ারা।
★ ভিটামিন এ সবচেয়ে বেশি -- গাজরে।
★ মানুষের প্রোটিনের অভাবে -- কোয়াশিয়কর রোগে।
★ অায়োডিন পাওয়া যায় -- শৈবালে।
★ অামাদের দেশে একজন পূর্ণবয়স্ক ব্যক্তির প্রায় গড় ক্যালরি শক্তির প্রয়োজন -- ২৫০০ ক্যালরি।
★ গ্লুকোজের স্থূল সংকেত -- CH2O
★ ল্যাথারাইজম রোগ -- খেসারি ডাল খেলে।
★ শরীরের হাড় ও দাতের গঠনের কাজে বেশি প্রয়োজন – ক্যালসিয়াম।
★ অতিরিক্ত শর্করা দেহে জমা থাকে –
গ্লাইকোজেন রূপে।
★ দুধের শ্বেতস্বার বা শর্করাকে বলা হয় — ল্যাকটোজ।
★ ডিমে নেই — ভিটামিন সি।
★ মানুষের শরীরে বেশিরভাগ ফসফেট
রয়েছে — হাড়ে।
★ রাতকানা রোগ বোঝানোর প্রতীক — XN.
★ নেশা সামগ্রী অাফিনের মূল উপাদান হলো — পপি।
★ স্কার্ভি রোগের প্রতিষেধক হিসেবে ব্যবহৃত হয় — ভিটামিন সি।
★ ভিটামিন এ এর কাজ — প্রজননে সহায়তা করা।
★ মানবদেহে প্রতিদিন পানির প্রয়োজন — ৩ লিটার।
★ একজন পূর্ণবয়স্ক মানুষের দেহে লোহার পরিমাণ — ২ থেকে ৬ গ্রাম।
★ বিভিন্ন খাদ্যে বিদ্যমান এসিড/উপাদানঃ
→ তেতুল — টারটারিক এসিড
→ লেবুর রস — সাইট্রিক এসিড
→ দুধ — ল্যাকটিক এসিক
→ কচু শাক — লৌহ
→ সিরকা — এসিটিক এসিড
→ অানারস — সাইট্রিক এসিড
→ টমেটো — ম্যালিক এসিড
→ কমলা — অ্যাসকারবিক এসিড
→ অাঙ্গুর — টারটারিক এসিড
→ ডাব — পটাশিয়াম
→ অাপেল — ম্যালিক এসিড
→ কলা — ম্যালিক এসিড, সাইট্রিক এসিড
→ অামলকি — অক্সালিক এসিড।
★ বিভিন্ন ভিটামিনের অভাবে সৃষ্ট রোগসমুহঃ
→ভিটামিন এ—রাতকানা
→ভিটামিন বি১—বেরিবেরি
→ভিটামিন বি২—মুখে ঘা
→ভিটামিন বি৩—পেলেগ্রা
→ভিটামিন বি৬—নিউরোপ্যাথি
→ভিটামিন বি১২—রক্ত শূণ্যতা
→ভিটামিন সি—স্কার্ভি
→ভিটামিন ডি—রিকেট, অস্টিও
মেলাসিয়া
→ভিটামিন ই—হিমোলাইটিক অ্যানিমিয়া
→ভিটামিন কে—রক্ত জমাট বাঁধা।
★ মুখে ও জিহবায় ঘা হয় -- ভিটামিন বি₂ এর অভাবে।
★ পানিতে দ্রবণীয় ভিটামিন -- ভিটামিন বি ও সি।
★ শিশুদের রিকেটাস রোগ হয় -- ভিটামিন ডি এর অভাবে।
★ মিষ্টি কুমড়া -- ভিটামিন জাতীয় খাদ্য।
★ মিষ্টি অালু -- শ্বেতস্বার জাতীয় খাদ্য।
★ শিমের বিচি -- অামিষ জাতীয় খাদ্য।
★ দুধে থাকে -- ল্যাকটিক এসিড।
★ অায়োডিনের অভাবে -- গলগন্ড রোগ হয়।
★ হেজ তৈরিতে ব্যবহৃত উদ্ভিদ -- করমচা।
★ লেবুতে বেশি থেকে -- ভিটামিন সি।

No comments:

Post a Comment


Pages